Skip to content

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি ২০২১-২০২২

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি ২০২১-২০২২ নিজেদের ওয়েব সাইটে প্রকাশ করেছে। আপনি যদি আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি হতে চান তবে আমাদের সাইট দেখতে পারেন । আমরা এই অনুচ্ছেদে আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি সকল তথ্য তুলে ধরেছি। আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ঢাকা সেনানিবাস ও সেনাকল্যান সংস্থার যৌথ ব্যবস্থপনায় পরিচালিত হয়। আধুনিক সকল ব্যবস্থার মাধ্যমে উক্ত মেডিকেল ইনস্টিটিউট পরিচালিত হয়। আজকে আমরা আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য নিয়ে আলোচনা করব । ভর্তি হতে হলে আপনাকে অবশ্যই বাংলাদেশি হতে হবে।

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী কর্তৃক পরিচালিত সরকারি প্রতিষ্ঠান। এই ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে ছাত্রছাত্রী সকলেই ভর্তি হতে পারবেন। আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজ এর দুইটি ক্যাটাগরী, এএমসি (আর্মি মেডিক্যাল কোর) ক্যাডেট ও এএফএমসি ক্যাডেট।

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি তথ্যঃ 

    প্রতিষ্ঠানের নামঃ আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট।
    জেলাঃ সকল জেলা।
    আবেদন শুরুঃ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২।
    আবেদন জমা শেষ তারিখঃ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২।
    আবেদন ফিঃ ৫০০ টাকা।
    প্রবেশ পত্র সংগ্রহ তারিখঃ ২ ও ৩ মার্চ ২০২২।
    লিখিত পরীক্ষাঃ ৫ই মার্চ ২০২২।
    লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশঃ ১০ মার্চ ২০২২।
    মৌখিক পরীক্ষাঃ ১৫,১৬ মার্চ ২০২২।
    চুড়ান্ত নির্বাচিতদের তালিকা প্রকাশঃ ২০ মার্চ ২০২২।
    ভর্তি কার্যক্রম শুরুঃ ২৭ থেকে ৩১ মার্চ ২০২২।

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি ২০২১-২০২২

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট ভর্তি ২০২১-২০২২

    ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতাঃ

    • প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
    • প্রার্থীকে ২০১৭ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ হতে হবে।
    • নূন্যতম ২.৫০ জিপিএ পেতে হবে।
    • অবশ্যই জীববিজ্ঞান থাকতে হবে।

    মনে রাখবেন বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীতে কর্মরত বা সেনাবাহিনী অবসর প্রাপ্তদের ছেলে মেয়েদের অগ্রধিকার দেওয়া হবে।

    আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট

    চিকিৎসা বিজ্ঞানের বিশ্বব্যাপী অগ্রগতির সাথে তাল মিলিয়ে দেশের চিকিৎসা শিক্ষা ক্রমাগত উন্নত হচ্ছে। বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী একবিংশ শতাব্দীতে স্বাস্থ্য খাতে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য একদল উদ্যমী, অনুপ্রাণিত এবং নিবেদিতপ্রাণ তরুণদের অধিকার করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছে। বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী একবিংশ শতাব্দীতে স্বাস্থ্য খাতে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য একদল উদ্যমী, অনুপ্রাণিত এবং নিবেদিতপ্রাণ তরুণদের অধিকার করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছে।

    আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজের একাডেমিক কার্যক্রম 20 জুন 1999 সালে 56 জন মেডিকেল ক্যাডেট অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে শুরু হয়। কলেজটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালের অধিভুক্ত এবং বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (BMDC) দ্বারা স্বীকৃত।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    "কনটেন্ট চুরি করে নিজকে চোর প্রমাণ করবেন না" KF