Skip to content

কনুইয়ের কালো দাগ দূর করার উপায়

    বেশিরভাগ ব্যক্তিদের মধ্যে কনুইটির চারপাশের ত্বক হাতের বাকী অংশের চেয়ে কালো হয়।এমনকি প্রাকৃতিকভাবে কালো রঙের মানুষের কনুই আরো কালো হওয়ার সম্ভবনা থাকে।আমেরিকান একাডেমি অফ ডার্মাটোলজি অনুসারে,  শরীরে অতিরিক্ত মেলানিন এর  কারনে   ত্বকে অন্ধকার দাগ  তৈরি হতে পারে। মেলানিন হ’ল  ত্বকের রঙ এর জন্য দায়ী পদার্থ।কনুইয়ের এই কালচে দাগ হাতের সৌন্দর্য নষ্ট করে। আর এই দাগ সহজে যেতেও চায় না। তবে এমন কয়েকটি ঘরোয়া প্যাক রয়েছে, যা হাঁটু বা কনুইয়ের কালচে দাগ সহজেই দূর করবে।

    পছন্দের এলাকায় পার্টটাইম/ফুলটাইম চাকরি খুঁজে পেতে এই অ্যাপটি ইন্সটল করে এখনই আবেদন করুন

    কনুইয়ের কালো দাগ দূর করার উপায়

    কনুইয়ের কালো দাগ দূর করার উপায়

     

    ১।শসাঃএর ব্লিচিং বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য, শসা অন্ধকার হাঁটু এবং কনুই থেকে মুক্তি পাওয়ার সবচেয়ে কার্যকর উপায়। এটি ত্বকের মৃত কোষগুলি সরিয়ে দেয় এবং আপনার ত্বককে ময়েশ্চারাইজ রাখে। শসাতে উপস্থিত ভিটামিন এ এবং সি ত্বককে সুন্দর ও সতেজ রাখে।

    i)আপনার কনুই এর  উপর 15 মিনিটের জন্য ধীরে ধীরে শসা এর  টুকরা ঘষুন।

    ii) এটি আরও 5 মিনিটের জন্য রেখে দিন এবং তারপর এটি ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

    ২।লেবু ও বেকিং সোডাঃ  একটি ত্বক আলোকিত করার একটি দুর্দান্ত উপাদান। এটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট এবং ভিটামিন সি দিয়ে ভরপুর যা ত্বকের পুনর্জন্মকে উন্নত করে এবং ত্বকের বর্ণকে উন্নত করে। বেকিং সোডা ত্বকের অন্ধকার অঞ্চল সাদা করার জন্য একটি  কার্যকর ক্লিনজার হিসাবে কাজ করে।

    i)একটি লেবু নিন এবং এটি ২ টা টুকরা করুন।
    ii)লেবুর উপরে ১ চা চামচ বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন।
    iii)আপনার কনুই এ ১ মিনিটের জন্য ঘষুন।
    iv)এটি 15 মিনিটের জন্য  রেখে দিন এবং তারপরে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

    কাঙ্ক্ষিত প্রভাবের জন্য প্রতি 2 দিনে একবার পুনরাবৃত্তি করুন।

    ৩।অ্যালোভেরা ও দুধঃ  অ্যালোভেরায় এমন উপাদান রয়েছে যা আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে এবং ত্বকের অসম ভাব উন্নত  করে। এটিতে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্যও রয়েছে। অ্যালোভেরা এবং দুধের সংমিশ্রণটি আপনার ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে হালকা করার একটি সহজ এবং দরকারী উপায়।

    i)সম পরিমাণে দুধ এবং অ্যালোভেরা জেল মিশ্রণটি মিশিয়ে আপনার ত্বকে লাগান।
    ii)এটি সারা রাত রেখে দিন এবং পরের দিন সকালে এটি ধুয়ে ফেলুন।

    ৪।আলুঃআলুতে ক্যাটাওলাস এনজাইম সমৃদ্ধ উপাদান থাকে যা প্রাকৃতিকভাবে আপনার ত্বককে হালকা করতে পারে। আলুর দৈনিক ব্যবহার আপনার ত্বককে নরম হবে এবং কালো দাগ থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করবে।

    i)আলু কুচি করে নিন, রস বার করে নিন এবং এটি আপনার ত্বকে লাগান।
    ii)এটি আপনার ত্বকে 15 মিনিটের জন্য রেখে দিন, তারপরে এটি জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

    ৫।হলুদঃহলুদ হল সবচেয়ে প্রাকৃতিক প্রতিকার যা আপনার হাঁটু এবং কনুই থেকে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছাড়াই মৃত ত্বকের কোষগুলি সরিয়ে দেয়। এতে কার্কিউমিন নামে একটি যৌগ রয়েছে যা  কালো দাগের জন্য দায়ী মেলানিনের অতিরিক্ত উত্পাদন হ্রাস এবং নিয়ন্ত্রণ করে।

    i)১ চা চামচ দুধের সাথে কিছুটা হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে নিন।
    ii)এটি হাঁটু এবং কনুইতে প্রয়োগ করুন।
    iii)কয়েক মিনিট ম্যাসাজ করুন এবং এটি প্রাকৃতিকভাবে শুকিয়ে যেতে দিন।
    iv)হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

    ৬।নারকেল তেলঃ নারকেল তেলতে প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ভিটামিন ই রয়েছে যা অন্ধকার এবং ক্ষতিগ্রস্থ ত্বক ঠিক করতে সহায়তা করে।

    i)স্নানের পরে কনুইতে নারকেল তেল লাগান।
    ii)তেল ত্বকে শোষিত না হওয়া পর্যন্ত আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন ।

    ৭।মধুঃ মধু প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসাবে কাজ করে। লেবুর সংমিশ্রণে এটি আপনার ত্বকে আশ্চর্যভাবে কাজ করতে পারে।

    i)২ টেবিল চামচ মধু, আধা লেবুর রস এবং ১ চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন।

    ii)কনুইয়ের কালো স্থানে মিশ্রণটি ভালোভাবে লাগান।

    iii)এটি 20 থেকে 30 মিনিটের জন্য রেখে এবং ধুয়ে ফেলুন।


    কনুইয়ের কালো দাগ দূর করার উপায়,কনুইয়ের কালো দাগ,কালো দাগ দূর করার ক্রিম,ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার উপায়,চশমার দাগ দূর করার উপায়,নাকে চশমার দাগ দূর করার উপায়,Gharer kalo dag dur korar upay,হাতের রোদে পোড়া দাগ দূর করার উপায়,ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়,নাকে কালো দাগ,ছেলেদের মুখের কালো দাগ দূর করার ক্রিমের নাম,ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ক্রিম এর নাম,kfplanet.com,

    
    
    
    

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    "কনটেন্ট চুরি করে নিজকে চোর প্রমাণ করবেন না" KFPlanet