পুরাতন-রিকন্ডিশন্ড প্রাইভেট কার গাড়ি কেনার আগে জেনে নিন!

বাংলাদেশে মধ্যবিত্ত জনসংখ্যা বেশি, সবার নতুন গাড়ির কেনার সামর্থ্য নেই। সেক্ষেত্রে পুরাতন-রিকন্ডিশন্ড প্রাইভেট কার গাড়ী অনন্য ভুমিকা পালন করতে পারে।  নতুন গাড়ির তুলনাই পুরাতন গাড়ির দামও কম। রিকন্ডিশন্ড গাড়ী বলতে ব্যবহার করাকে বুঝায়। গাড়ী কেনার সময় বড় বিনিয়োগ করতে হয়। এজন্য গাড়ী কেনার সময় খুবই ভেবেচিন্তে কিনতে  হবে। পুরাতন গাড়ী কেনা অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং,কারন একই বছরে দুটি গাড়ী বের হলে দুটি একই রকম থাকে না,ব্যাবহারের কাছে দুটি দুই রকম হয়। পুরাতন গাড়ী কিনতে গেলে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখতে হয় ,আজ আমরা সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। আমারা আমাদের আলোচনা কে এমন ভাবে সাজিয়েছি যে পুরাতন গাড়ী কেনার ক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করবে।

পুরাতন-রিকন্ডিশন্ড প্রাইভেট কার গাড়ি কেনার আগে জেনে নিন

চলুন দেখে নেওয়া যাক ,যে যে বিষয় মাথায় রাখবেন

গাড়ীর ফিটনেসঃ পুরাতন গাড়ীর কেনার ক্ষেত্রে প্রথম যে বিষয় খেয়াল রাখবেন, সেটা হল গাড়ীর ফিটনেস। ফিটনেস ছাড়া গাড়ী ভাল হই না । ফিটনেস বিহীন গাড়ী কিনলে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তাই পুরাতন গাড়ী ক্ষেত্রে গাড়ীর ফিটনেসের উপর বেশি জোর দিবেন।

দুর্ঘটনা শিকার কি নাঃ  পুরাতন গাড়ী কেনার সময় লক্ষ্য করবেন গাড়ীর কোথাও আঘাতের চিহ্ন আছে কিনা। কোন চিহ্ন থাকলে জিজ্ঞাসা করে নিবেন কিসের চিহ্ন । দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ী না কেনাই ভাল। গাড়ীর ভেতর বাহির  ভাল করে দেখে নিবেন ,তবে গাড়ী ভাল করে দেখার আগে বিক্রেতা যদি খুব দ্রুত চুক্তি করতে চাই , মনে করবেন গাড়ীর কোন সমস্যা আছে।

মাইলেজ কতঃ মাইলেজ ,গাড়ী কেনার ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্ত বহন করে । রিকন্ডিশন্ড গাড়ী কিনে থাকে মূলত যাদের বাজেট কম। যদি আপনার গাড়ীর মাইলেজ কম থাকে তবে লাভের গুড় পিঁপড়ে খেয়ে নিবে। সুতরাং পুরাতন গাড়ী কেনার সময় অব্যশই মাইলেজ দেখে নিবেন।

জনপ্রিয় ব্র্যান্ডঃ রিকন্ডিশন্ড গাড়ী কেনার সময় খেয়াল রাখবেন বাজারে কোন ব্রান্ডের গাড়ীর চাহিদা বেশি। বাংলাদেশের বাজারে টয়োটা বেশি জনপ্রিয় তারপর হোন্ডা,নিশান, মিতশুবিশিসহ বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ড আছে। এগুলো জনপ্রিয়তা বেশি থাকায় এর যন্ত্রাংশ খুব সহজে পাওয়া যায়।

বিক্রেতার তথ্য সম্পর্কে জানাঃ  পুরাতন গাড়ী কেনার সময় বিক্রেতা সম্পর্কে ভাল ভাবে জানতে হবে। কোন বিক্রেতা বছরে ২০ বা৩০ গাড়ী আমদানি করে আবার কোন বিক্রেতা ৫ থেকে ৭ টি আমদানি করে সেক্ষেত্রে দুই জনের অভিজ্ঞতা দুই রকম হবে আবার দামেরও পার্থক্য থাকে।

বিক্রেতা ধূমপায়ী কিনাঃ  আপনি যদি অধূমপায়ী হয়ে থাকেন তাহলে পুরাতন গাড়ীর কেনার সময় বিক্রেতা ধূমপায়ী কিনা দেখে নিবেন। গাড়ীর ভেতর ধূমপানের গন্ধ থাকলে আপনার জন্য সমস্যা হতে পারে।

 গাড়ীর চেহারাঃ রিকন্ডিশন্ড গাড়ী কেনার সময় গাড়ীর চেহারা ভাল করে দেখে নিবেন। রিকন্ডিশন্ড সব গাড়ীর সুন্দর হয় না, সেজন্য গাড়ী ভাল করে দেখে কিনুন।

গাড়ীর টায়ার দেখে নিবেনঃ পুরাতন গাড়ী নেওয়ার সময় গাড়ীর চার টি চাকা ভাল করে চেক করে নিবেন।পুরাতন গাড়ীর চাকা ভাল হয় না ।আপনি ভাল করে দেখে ভাল চাকার গাড়ী কিনবেন।

ফ্লুইড লিক করে কি না দেখুনঃ গাড়ী থেকে  ফ্লুইড লিক করে কি ভাল করে দেখবেন। ফ্লুইড লিক দেখলে সেই গাড়িটি বাদ দেওয়া উচিত। ফ্লুইড  লিক করা গাড়ী কখন ও ভাকল হয় না।

ওয়ারেন্টি গ্যারান্টি দেখবেনঃ পুরাতন গাড়ীর গ্যারান্টি বা ওয়ারেন্টি খুব বেশি থাকে না । তবে অনেকে নতুন মডেলের কোন গাড়ী বাজারে আসলে ,তার ব্যাবহার করা গাড়ীটি ওয়ারেন্টি থাকা অবস্থাই বিক্রয় করে দেয়।

খরচের কথা মাথায় রাখবেনঃ পুরাতন গাড়ী কেনার পর খরচের দিকটি মাথায় রাখবেন । পুরাতন গাড়ীর মালামাল ভাল থাকে না, এজন্য যে কোন সময় আপনার গাড়ীর পেছনে এক কালিন অনেক টাকা খরচ হতে পারে।

চালিয়ে দেখে নিবেনঃ গাড়ী কেনার আগে অবশ্যই চালিয়ে দেখে নিবেন। গাড়ী চালানোর সময় ভাল করে দেখবেন কোন সমস্যা পাচ্ছেন কি না । পুরাতন গাড়ী টেস্ট দেওয়ার সময় গাড়ীর সব কিছু ভাল করে দেখবেন কোনরকম সমস্যা আছে কি না । সমস্যা পেলে সেই গাড়িটি কিনবেন না।

গাড়ীর সার্ভিসিং সম্পর্কে জানুনঃ পুরাতন গাড়ী কেনার আগে ,অতীতে গাড়ীর কোন সার্ভিসিং করেছে কিনা সে সম্পর্কে ভাল করে জানুন। সার্ভিসিং করলে গাড়ীর কোন পার্টস নাকি ইঞ্জিন  করেছে সে সম্পর্কে ভাল করে তথ্য নিন।

একজন বিশেষজ্ঞ সাথে নিনঃ  নতুন কিংবা পুরাতন গাড়ী কেনার আগে একজন ভাল বিশেষজ্ঞকে সাথে নিয়ে যাবেন। এতে আপনার ভাল কিছু হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। বিশেষজ্ঞ থাকলে কিভাবে কম টাকাই ভালো গাড়ী কেনা যায় ,আপনি বুঝতে পারবেন। ভালো গাড়ী কিনতে হলে বিশেষজ্ঞকে অবশ্যই সাথে রাখবেন।

 

পুরাতন বা রিকন্ডিশন্ড গাড়ী কেনার আগে উপরের আলোচনা গুলা দেখলে আপনি খুব সহজে কিনতে পারবেন।তবে আপনি কারও পরামর্শ নিতে চাইলে যে গাড়ীর বিষয়ে ভালো বুঝে তার কাছে যাবেন কারন আমাদের দেশে সবাই পরামর্শ দিতে পারে। আমাদের দেশে রোগীর চেয়ে ডাক্তারের সংখ্যা অনেক বেশি। আপনার বিষয়ে আপনাকেই ডিসিশন নিতে হবে । মনে রাখবেন, আপনার বিষয়ে সবাই মাথা ঘামাবে কারও কথায় থেমে যাওয়া যাবে না।

 

পুরাতন গাড়ি ক্রয়ের আগে , পুরাতন গাড়ি কেনা, পুরাতন গাড়ি কিনতে চাই, পুরাতন গাড়ি কেনার টিপস,পুরাতন গাড়ি কেনার আগে, রিকন্ডিশন্ড গাড়ি কেনার আগে, রিকন্ডিশন্ড গাড়ি কেনার টিপস, পুরাতন কার ক্রয়ের আগে, পুরাতন কার কেনার আগে, সেকেন্ড হ্যান্ড প্রাইভেট কার কেনার আগে, পুরাতন গাড়ি কেনার আগে সতর্কতা, রিকন্ডিশন্ড গাড়ি কেনার আগে সতর্কতা,সেকেন্ডহ্যান্ড গাড়ি কেনার আদ্যোপান্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *