Skip to content

বাংলাদেশ সামরিক শক্তি ২০২২ ~ সামরিক শক্তিতে বিশ্বে বাংলাদেশ কততম?

    বাংলাদেশের সামরিক শক্তি ও সামরিক শক্তিতে বিশ্বে বাংলাদেশ দিন দিন ভাল একটি একটি অবস্থান তৈরি করছে। আধুনিক সব প্রযুক্তি বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী সুসজ্জিত হচ্ছে। যুদ্ধের পরবর্তীতে এই দেশের সামরিক শক্তিতে উল্লেখ যোগ্য ভাবে উন্নয়ন হয়েছে।  একটি দেশের সামরিক সরঞ্জামের সংখ্যা দিয়ে কেবল এই শক্তিমত্তার বিষয়টি নির্ণয় করা হয়নি। একটি দেশের সামরিক সরঞ্জাম কতটা বৈচিত্র্যপূর্ণ, সেটিও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। বিশ্বের ১৩৮টি দেশের ওপর পঞ্চাশটিরও বেশি মাপকাঠির ভিত্তিতে গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার (জিএফপি) নামের আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান “২০২১ : মিলিটারি স্ট্রেন্থ র‍্যাংকিং” তৈরি করেছে। ২০২১ সালের সামরিক শক্তি র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার। বাংলাদেশেরও অগ্রগতি হয়েছে। বাংলাদেশের সামরিক শক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের এই অনুচ্ছেদটি ভাল করে পড়তে পারেন।

    বাংলাদেশ সামরিক শক্তি

    বাংলাদেশের সামরিক শক্তি দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে অন্যতম। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সামরিক শক্তিতে পাকিস্তানের অবস্থান ১০ম।  একটি গবেষণায় সামরিক সরঞ্জামের সংখ্যার পাশাপাশি সামরিক সরঞ্জাম কতখানি বৈচিত্র্যপূর্ণ, সেটিও বিবেচনায় করা হয়েছে। সামরিক শক্তি পরিমাপের ক্ষেত্রে সেনা, নৌ এবং বিমানবাহিনীর শক্তি-সামর্থ্য অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ারের তথ্য অনুযায়ী সামরিক শক্তিতে বাংলাদেশ রয়েছে ৪৬ নম্বারে। বাংলাদেশের রয়েছে মোট এক লাখ ৬০ হাজার সক্রিয় সেনাসদস্য। বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বাজেট ৩৮০ কোটি ডলারের। বাংলাদেশের ১৭৭টি  এয়ারক্রাফট আছে। নৌশক্তিতে বাংলাদেশের রয়েছে ১১২টি জাহাজ দক্ষিণ এশিয়ায় নৌবাহিনীতে বাংলাদেশ অনেক শক্তিশালী। বাংলাদেশের কমব্যাট এয়ারক্রাফট বা যুদ্ধবিমান রয়েছে ৪৪টি। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৬৭টি হেলিকপ্টার আছে। বাংলাদেশের সাঁজোয়া যানের সংখ্যা ১,২৩০টি। স্বয়ংক্রিয় আর্টিলারি বাংলাদেশের মাত্র ১৮টি আছে। ফিল্ড আর্টিলারি বাংলাদেশের রয়েছে ৪১৯টি। বাংলাদেশের ৭২টি রকেট প্রজেক্টর আছে। বাংলাদেশের রয়েছে দুটি সবামেরিন। বাংলাদেশের রয়েছে আটটি ফ্রিগেট। করভেটের সংখ্যা বাংলাদেশের আছে ছয়টি। বাংলাদেশের রয়েছে ৩০টি উপকূলে টহল দেয়ার নৌযান। বাংলাদেশে বিমানবন্দর রয়েছে ১৮টি।

    একটি দেশের শক্তিমত্তার বিষয়টি নির্ণয় করা  সামরিক সরঞ্জামের পাশাপাশি সামরিক সরঞ্জাম কতটা বৈচিত্র্যপূর্ণ, ভৌগোলিক অবস্থান, জনশক্তি, উন্নয়ন এবং প্রাকৃতিক সম্পদসহ আরো কিছু বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়ে থাকে।

    সামরিক শক্তিতে বিশ্বে বাংলাদেশ কততম?

    সামরিক শক্তিতে বিশ্বে বাংলাদেশ কততম আছে , এই তথ্য আপনাদেরকে দেখাব।  প্রতি বছর সামরিক শক্তি র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার। একটি দেশের সামরিক সরঞ্জামের সংখ্যার পাশাপাশি সামরিক সরঞ্জাম কতখানি বৈচিত্র্যপূর্ণ, সেটিও বিবেচনায় নেওয়া হয়। গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার (জেএফপি এর তথ্য অনুযায়ী গত বছরের তুলনায় একধাপ এগিয়ে ৪৫তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। প্রতিবারের মতো এ বছরও সামরিক শক্তিতে শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভারত পাকিস্তানের পর বাংলাদেশের সামরিক শক্তি কে ধরা হয়।

    অনেকে মনে করেন, জাতির শক্তি হলো তার রাজনৈতিক শক্তি। ১৯০টি দেশ নিয়ে এই র‌্যাঙ্কিং প্রকাশ করা হয়েছে। যে সাতটি ক্যাটাগরির ভিত্তিতে এই র‌্যাঙ্কিং করা হয়েছে, সেগুলোর মধ্যে আবার ৬০টি সূচক প্রণয়ন করা হয়েছে। তবে ভৌগলিক অবস্থান সামরিক শক্তির জন্য একটি গুরুত্ব পূর্ণ ভুমিক পালন করে।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.