সাপে কামড়ানোর লক্ষণ ও সাপ কামড়ালে করনীয়

সাপ কে ভয় পাই না এমন মানুষ খুব কম আছে। পৃথিবীতে পতিনিয়ত অনেক মানুষ মারা যাই সাপের কামড়ে। বিশেষ করে নির্জন বা পাহাড়ি এলাকায় বেশি এসব দুর্ঘটনা বেশি হয়। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম না।তাই আজকের পোস্ট সাপে কামড়ানোর লক্ষন ও  সাপ কামড়ালে করনীয়। তবে বাংলাদেশে বিষ ধর সাপ খুব বেশি নাই। মে থেকে অক্টোবর  বাংলাদেশে সাপের উৎপাত বেশি হয়। সাপে কামড়ালে যে বিষ হবে এটা ভাবা যাবে না ,সব সাপের বিষ থাকে না।তবে কামড়ানোর সময়  সাপ চিনতে পারলে চিকিসা দিতে ভাল হয়।

সাপে কামড়ানোর লক্ষণ

সাপে কামড়ানোর লক্ষণ ও সাপ কামড়ালে করনীয়

সাপে কামড়ালে কিছু লক্ষণ দেখা যায় তার মধ্যে অন্যতম

-কামড়ানোর স্থানে দুটি দাতের চিহ্নের দাগ।

– ক্ষত স্থানে রক্তপাত হওয়া ও ক্ষত স্থান ফুলে ওঠা।

-কামড়ানো স্থানে জ্বালা যন্ত্রণা করা।

-চোখের পাতা বন্ধ হয়ে আশা ও চোখে ঝাপসা দেখা।

-ঢোক গিলতে সমস্যা ও নিশ্বাস বন্ধ হয়ে আশা।

-হাত পা অবশ ও ঘাড় সোজা না রাখা।

-অচেতন হয়ে পড়া।

সাপে কামড়ালে এ সব লক্ষণ দেখা যাবে।

সাপে কামড়ালে করনীয়

সাপে কামড়ালে যত দ্রুত সম্ভব নিকটস্থ হসপিটালে নিতে হবে। চিকিৎসক রোগীকে সাপে কাটার ভ্যাকসিন অ্যান্টি স্নেক ভেনম দিবে।  ( বিঃদ্রঃ সম্ভব হলে সাপ টা কেমন সেটা খেয়াল করা, কারন চিকিৎসক সেটি জানতে চাইতে পারে)

সাপে কামড়ানোর প্রাথমিক চিকিৎসাঃ

  • আক্রান্ত বাক্তিকে হাটতে না দেওয়া
  • আক্রান্ত বাক্তিকে সাহস দেওয়া।
  • আক্রান্ত বাক্তিকে কাত করা না শুইয়ে সোজা করা শুইয়াতে হবে
  • কামড়ানো স্থান থেকে একটু উপরে বেধে দিতে হবে।
  • দংশিত স্থানে জীবাণুনাশক দিয়ে মুছে দিতে হবে।

সাপে কামড়ালে উপরের আলোচনার প্রেক্ষিতে যত দুহ্রুত সম্ভব বাবস্থা নিতা হবে। মনে রাখতে হবে সচেতনাতা আপনাকে অনেক বিপদ থেকে রক্ষা করবে।


সাপে কামড়ানোর প্রাথমিক চিকিৎসা, সাপে কাটলে প্রাথমিক চিকিৎসা,সাপে কাটা রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা,সাপে কাটার ভ্যাকসিন এর নাম, সাপের কামড়ের ঔষধ,সাপের কামড় চেনার উপায়, সাপের কামড়ের চিকিৎসা, সাপ কামড়ালে কি করা উচিত,সাপে কামড়ালে কি করতে হয়,sap kamrale ki korbo,সাপের কামড় থেকে বাঁচার উপায়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *