দুর্বল মানসিক স্বাস্থ্যের মহিলাদের ‘অকাল প্রসবের ঝুঁকি ৫০% বেশি

ইংল্যান্ডে ০২ মিলিয়নের বেশি গর্ভবতীর উপর গবেষণা করে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা ও অকাল প্রসবের ঝুঁকির একটি যোগসূত্র পাওয়া গেছে। যে সকল মহিলারা গর্ববতী থাকাকালীন তাদের মানসিক সমস্যা থাকে তাদের অকাল প্রসবের ঝুঁকি প্রায় ৫০% বেশি হয়ে থাকে।

ল্যানসেট সাইকিয়াট্রিতে প্রকাশিত গবেষণায় ইংল্যান্ডের ০২ মিলিয়নেরও বেশি গর্ভবতী তথ্য পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে,  মানসিক স্বাস্থ্য সেবা ব্যবহার করেছেন এমন ১০ জনের মধ্যে একজন মহিলার অকাল প্রসব হয়েছে, যেখানে ১৫ জনের মধ্যে একজন করেনি।

গবেষণায় আরো পাওয়া গেছে যে,  পূর্ববর্তী মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা থাকলে এবং জন্মের সময় বিভিন্ন সমস্যার ফলে খারাপ ফলাফলের একটি স্পষ্ট যোগসূত্র পাওয়া গেছে। যেসব মহিলাকে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাদের মানসিক স্বাস্থ্য চেকাপ না করা মহিলাদের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ অকাল প্রসবের সম্ভাবনা ছিল।

সংক্ষেপে গবেষণার তথ্য

  • গবেষণার ফল প্রকাশঃ আগস্ট ২০২৩
  • কত জনের উপর পরীক্ষা করা হয়েছেঃ ০২ মিলিয়নের বেশি গর্ববতী
  • সমাধান কি? প্রি প্লান করে বেবি নিতে হবে। এছাড়া আপনার কনসালটেন্ট এর সাথে প্রথম থেকেই মানসিক সাস্থের ব্যাপারে আলোচনা করে নিবেন।

সমস্যা সমাধানে ডাক্তারের পরামর্শ

কিংস কলেজ লন্ডন মহিলাদের মানসিক স্বাস্থ্যের অধ্যাপক এমেরিটা বলেছেন, “একবার এই মানসিক স্বাস্থ্যের ঝুঁকির কারণগুলি চিহ্নিত করা হলে তাদের চিকিত্সা করা যেতে পারে, সম্ভাব্য জন্মমৃত্যু, মৃতপ্রসব, অকাল প্রসব এবং কম ওজনের শিশুর চিকিৎসা করা যেতে পারে।”

হাওয়ার্ড বলেছেন: “মানসিক অসুস্থতা একটি নিরাময়যোগ্য রোগ। প্রসূতি বিশেষজ্ঞগন ধূমপান, স্থূলতা সমস্যার মতো পরিবর্তনযোগ্য ঝুঁকির কারণ সম্পর্কে চিন্তা করে, তবে তারা মানসিক রোগে আক্রান্ত মহিলাদের হতে পারে এমন কিছু অতিরিক্ত ঝুঁকি সম্পর্কে ভাবেননি।”

হাওয়ার্ড, ২০১৪ সালে একটি কমিটির সভাপতিত্ব করেছিলেন,যেখানে প্রসবপূর্ব এবং প্রসবোত্তর মানসিক স্বাস্থ্যের উপর নির্দেশিকা তৈরি করেছিল, এরপর তিনি বলেছিলেন আমার এই নির্দেশনা মোতাবেক আরো গবেষণা করা উচিৎ।

➩➩ মেয়েদের ওজন কমানোর উপায় (দ্রুত ওজন কমিয়ে ফেলুন)

গর্ভাবস্থায় মানসিক স্বাস্থ্যের ওষুধ খাওয়া যাবে কিনা?

হাওয়ার্ড বলেন, মানসিক স্বাস্থ্যের ওষুধগুলিও গর্ভাবস্থায় সমস্যা বাড়াতে পারে। “অ্যান্টিসাইকোটিকস স্থূলতার সাথে যুক্ত। কিছু এন্টিডিপ্রেসেন্টস খারাপ ফলাফলের সাথেও যুক্ত হতে পারে। সেজন্য আমাদের সত্যিই সাবধানে চিন্তা করতে হবে যে ওষুধ থেকে কে উপকৃত হবে। কিংবা মেডিসিনের পরিবর্তে মনস্তাত্ত্বিক থেরাপি ব্যবহার করা যেতে পারে কিনা ভাবা উচিৎ।

গবেষণায় এক্সেটার বিশ্ববিদ্যালয়, কিংস কলেজ লন্ডন, লন্ডন স্কুল অফ হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিন এবং লিভারপুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা কাজ একসাথে কাজ করেছেন।

অকাল প্রসব বা প্রিম্যাচিউর ডেলিভারি

গর্ভাবস্থার ৩৭ তম সপ্তাহর আগে বা পরে শিশু জন্ম হয়ে থাকলে অকাল প্রসব বা প্রিম্যাচিউর ডেলিভারি বলে। অকাল প্রসব হওয়া বেবিদের পুরোপুরি শারীরিক বৃদ্ধি ও বিকাশ হয় না। এছাড়া মা ও শিশুর জীবনঝুঁকি থাকে।

সম্পাদনাঃ কামাল হোসেন ফুয়াদ
সোর্সঃ https://www.theguardian.com

🔎 শিক্ষা,চাকরি,লাইফ স্টাইল টিপস সহ সকল খবর সবার আগে জানতে 

KFPlanet ফেসবুক পেজ   📰 Gᴏᴏɢʟᴇ Nᴇᴡsটেলিগ্রাম চ্যানেল ফলো করুন 👉 Youtube চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন। যে কোন সার্কুলার ডাউনলোড করতে আমাদের Mobile APP ইন্সটল করুন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেনঃ kfsoft@yahoo.com যে কোন প্রয়োজনেঃ kfplanetbd@gmail.com